ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে আর খেলতে রাজি নন ডোয়াইন ব্র্যাভো

প্রকাশের সময়: ৯:৪৯ অপরাহ্ন - শনি, ডিসেম্বর ১৬, ২০১৭

Bravo-
স্পোর্টস লাইফ, ডেস্ক : ‘চ্যাম্পিয়ন, চ্যাম্পিয়ন’- গান এবং ড্যান্স। ২০১৬ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জয়ের পর ডোয়াইন ব্র্যাভোর কণ্ঠে এই গান এবং ড্যান্স ঝড় তুলেছিল পুরো বিশ্বে। ক্যারিবিয়ানরা ক্রিকেট কত মজা করে খেলেন তার যেন সর্বশেষ সংস্করণ ডোয়াইন ব্র্যাভোর এই ব্র্যান্ড গান। কিন্তু সেই সত্যিকার চ্যাম্পিয়ন কিন্তু এরপর থেকেই ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট দলের বাইরে।

পারিশ্রমিক এবং দল গঠনের ব্যাপারে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট বোর্ডের কঠোর নীতির কারণে ব্র্যাভো, গেইল, পোলার্ড কিংবা সুনিল নারিনের মত বিশ্ব মাতানো ক্রিকেটাররা এখন আর ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে খেলতে পারেন না। জাতীয় দলে সুযোগ পান না তারা। যদিও, ২০১৯ বিশ্বকাপে ওয়েস্ট ইন্ডিজ যখন সরাসরি সুযোগ পাচ্ছে না এবং বিশ্বকাপে খেলাই যখন তাদের সামনে অনিশ্চিত হয়ে দাঁড়িয়েছে, তখন শর্ত শিথিল করে গেইল-ব্র্যাভোদের জাতীয় দলে ফেরার সুযোগ করে দিয়েছে বোর্ড।

কিন্তু গেইল-পোলার্ডরা দলে ফিরলেও ডোয়াইন ব্র্যাভো ফিরতে নারাজ। তিনি সরাসরি, জানিয়ে দিয়েছেন, ওয়েস্ট জাতীয় দলে কেউ যেন আমাদে দেখার প্রত্যাশা আর না করে। তাহলে ক্যারিয়ারের কী হবে তার? এ বিষয়ে ব্র্যাভো জানিয়েছেন, ‘ধীরে ধীরে আমি সংক্ষিপ্ত সংস্করণের ক্রিকেটই খেলে যাবো।’ অথ্যাৎ, বিশ্বব্যাপি যেসব ফ্রাঞ্চাইজি ক্রিকেট রয়েছে সেগুলোতে নিয়মিত খেলে যাবেন তিনি।

ডোয়াইন ব্র্যাভো মনে করেন, এমনিতেই ওয়েস্ট ইন্ডিজ জাতীয় দলে তাকে পূনরায় ডাকা হবে- এ সম্ভাবনা খুব ক্ষীণ। তিনি বলেন, ‘আমি টুর্নামেন্টগুলোর (ফ্রাঞ্চাইজি টুর্নামেন্ট) দিকেই তাকিয়ে আছি, নিজের ক্রিকেট ক্যারিয়ার টেনে নেয়ার জন্য। যেভাবেই হোক, যদি আমি ক্রিকেট খেলে যেতে পারি, তাহলেই সুখি থাকবো। তবে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলতে পারবো কি না তা নিয়ে সন্দিহান। কারণ, আমি ওয়েস্ট ইন্ডিজ দল থেকে অনেক দুরে সরে পড়েছি।’

যখন ফিট ছিলেন তখনই তাকে দলে নেয়া হয়নি। এখন তো বয়স বেড়ে গেছে। তিনি বলেন, ‘যখন ফিট ছিলাম, তখনই দল থেকে বাদ দেয়া হয়েছে। এখন তো আমার বয়স হয়েছে ৩৪ বছর। এখন তো দলে নেয়ার কোনো সম্ভাবনাই নেই।’

উপরে