ঘুমের ওষুধ খেয়েছিলেন স্মিথ

প্রকাশের সময়: ৯:৩৭ অপরাহ্ন - বুধ, ডিসেম্বর ৬, ২০১৭

Smith

স্পোর্টস লাইফ, ডেস্ক : শেষ দিনে জয়ের জন্য ইংল্যান্ডের দরকার ১৭৮ রান, হাতে আছে ৬ উইকেট। সবচেয়ে বড় কথা ক্রিজে টিকে আছেন জো রুটের মতো ব্যাটসম্যান। অ্যাডিলেডের দিন-রাতের টেস্ট ম্যাচটির চতুর্থ দিন শেষে তাই রাজ্যের চিন্তা ভিড় করে অস্ট্রেলিয়া অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথের মনে। মাঠ ছাড়ার পর থেকে তিনি অস্বস্তিতে। পঞ্চম দিনের সকালের পরিকল্পনা কী হবে, রুটকে ফেরানো যাবে কিভাবে- দুশ্চিন্তায় তো তার রাতের ঘুম হারাম। শেষমেষ ঘুমের ঔষুধের সাহায্য নিতে হয় স্মিথকে।

অ্যাডিলেড টেস্ট ১২০ রানে জেতার পর আগের রাতের অস্বস্তির কথা ভাগাভাগি করেছেন তিনি সংবাদমাধ্যমের কাছে। অ্যাশেজের দ্বিতীয় টেস্টে কঠিন সময় পার করেছেন উল্লেখ করে অস্ট্রেলিয়ান অধিনায়ক বলেছেন, ‘গত রাতে আমাকে ঘুমের ঔষুধ খেতে হয়েছিল। সত্যি কথা বলতে ২৪ ঘণ্টা খুব কঠিন কেটেছে, যেটা আমাদের দেশের সব অধিনায়কের বেলাতেই হয়েছে। মাঝেমধ্যে আপনাকে কঠিন কোনও সিদ্ধান্ত নিতে হবে, কখনও সেটা সঠিক হবে, কখনও ভুল।’

প্রথম ইনিসে অস্ট্রেলিয়া ৮ উইকেটে ৪৪২ রানে ইনিংস ঘোষণা করার পর ইংলিশদের গুটিয়ে দেয় ২২৭ রানে। কিন্তু দ্বিতীয় ইনিংসে দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়ায় সফরকারীরা। অস্ট্রেলিয়াকে ১৩৮ রানে অলআউট করে দারুণ ব্যাটিংয়ে দেখতে থাকে জয়ের স্বপ্ন। কঠিন ওই পরিস্থিতির বর্ণনা করলেন স্মিথ এভাবে, ‘এই টেস্টের প্রথম আড়াই দিন আমরাই প্রভাব বিস্তার করেছিলাম। যদিও শেষ কয়েকদিনে ইংল্যান্ড লড়াই করে ঘুরে দাঁড়ায়। সত্যি বলতে খেলা শেষে গত রাতে আমি বেশ স্নায়ুচাপে ভুগেছি।’

জো রুটের মতো ব্যাটসম্যান ক্রিজে থাকলে দুশ্চিন্তায় কপালে ভাঁজ পড়াই স্বাভাবিক। অস্ট্রেলিয়ান অধিনায়কও অবলীলায় স্বীকার করে নিয়েছেন তা, ‘ওরা খুব ভালো খেলছিল, বিশেষ করে রুট ও (ডেভিড) মালান। আমরা তখন একটি বা দুইটি উইকেট থেকে দূরে। কিন্তু রুটের মতো ভয়ঙ্কর ব্যাটসম্যান যদি টিকে থাকে, তাহলে আমাদের কাজটা কঠিন করে তুলবে। যদিও ভাগ্য সঙ্গে থাকায় আমরা তাদের আউট করতে পেরেছি।’

উপরে