উত্তর কোরিয়া অনেক শক্তিশালী দল : গোলাম রব্বানী ছোটন

প্রকাশের সময়: ৮:৪৪ অপরাহ্ন - সোম, সেপ্টেম্বর ১১, ২০১৭

bagladesh-coach

স্পোর্টস লাইফ, ডেস্কম্যাচের দিন সকালে ৪৫ মিনিট অনুশীলন করা নিয়ে মিডিয়ার মুখোমুখি হতে হবে তা হয়তো বুঝতেই পেরেছিলেন কৃষ্ণাদের কোচ গোলাম রব্বানী ছোটন। তাই জবাবটাও ঠিক করে রেখেছিলেন তিনি। কিংবা যার নির্দেশে এ কাজটি করতে বাধ্য হয়েছিলেন ছোটন- সেই বাফুফের টেকনিক্যাল ও স্ট্র্যাটেজিক ডিরেক্টর পল স্মলিই হয়তো ম্যাচ শেষে কানে ঢুকিয়ে দিয়েছিলেন সকালের অনুশীলন নিয়ে কেউ প্রশ্ন করলে কী জবাব দিতে হবে। তাই তো অনূর্ধ্ব-১৬ নারী দলের প্রধান কোচ সকালে করা অনুশীলনের ব্যাখ্যা দিয়েছেন এভাবে, ‘সকালে আমরা অনুশীলন করেছি ঠিকই, তবে তা শুধু সেট পিসের।’

প্রতিপক্ষ যখন উত্তর কোরিয়া, তখন ম্যাচের দিন সকালে বাংলাদেশের মেয়েরা অনুশীলন করলেই কী, আর না করলেই বা কী? কোরিয়ানদের সামনে কোনো কৌশলই টেকার কথা নয় বাংলাদেশের। পলের উদ্ভট কৌশলটা তো নয়ই। টুর্নামেন্ট কাভার করতে থাইল্যান্ড যাওয়া সহকর্মীদের মাধ্যমে জানা গেছে, ম্যাচ চলাকালীন ডাগআউট থেকেও নাকি সারাক্ষণ চিল্লাপাল্লা করেছেন টেকনিক্যাল ও স্ট্র্যাটেজিক ডিরেক্টর পল স্মলি। তাতে মেয়েরা মাঠে বিভ্রান্তও হয়েছেন। স্বাভাবিকভাবেই প্রশ্ন উঠবে কৃষ্ণাদের কোচ কে?

বাংলাদেশের ফুটবলে এখন পলই সব। বিশেষ করে মেয়েদের ফুটবলে। ছেলেদের ফুটবলের ধারে-কাছে তাকে না পাওয়া গেলেও পল মেয়েদের সঙ্গে সফর করেছেন জাপান-কোরিয়াসহ প্রায় সব দেশেই। পলের বাড়াবাড়ি নিয়ে এমনিতেই চাপা ক্ষোভ বাফুফেতে। যদিও উত্তর কোরিয়ার কাছে ৯ গোল খাওয়ার সাথে পলের কার্যকলাপের সম্পর্ক না টানাই ভালো। উত্তর কোরিয়া দুই দেশের ফুটবলের পার্থক্যটা বুঝিয়েছে মাত্র।

কোচ গোলাম রব্বানী ছোটনও ম্যাচের পর দুই দেশের ফুটবলের পার্থক্য নিয়েই কথা বলেছেন, ‘আমাদের মেয়েদের ফিটনেস খারাপ নয়। এটা কোনো সমস্যা ছিল না। মূল সমস্যা ছিল উত্তর কোরিয়া অনেক শক্তিশালী। আমাদের চেয়ে ওদের মেয়েদের গতি ছিল বেশি। আমরা এই প্রথম এই পর্যায়ের কোনো টুর্নামেন্ট খেলছি। আশা করি ধীরে ধীরে আমাদের মেয়েরা আরো উন্নতি করবে।’

উত্তর কোরিয়ার কোচ সং সুং হয়তো ভেবেছিলেন আরো বেশি গোল দিয়ে তারা টুর্নামেন্ট শুরু করবেন। পারেননি বলেই হয়তো ম্যাচের পর বাংলাদেশের মেয়েদের প্রশংসাই করেছেন তিনি, ‘বাংলাদেশ ভালো খেলেছে। বলবো, আমরা যা ভেবেছিলাম তার চেয়ে বেশি। তবে আমি আমার মেয়েদের প্রশংসাও করবো। ওরা ভালো খেলেছে, ওদের পারফরম্যান্সে আমি খুশি। ৫ গোল করা কিং কিয়ং ইয়ং প্রসঙ্গে কোরিয়ান কোচ বলেন, ‘সে অনেক ইয়ং। তবে সে জানে, কিভাবে খেলতে হয়। আমাদের দলের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড় কিং কিয়ং ইয়ং। আমরা এ টুর্নামেন্টের জন্য ভালো প্রস্তুতি নিয়েই এসেছি। এখন আমাদের দৃষ্টি সামনের ম্যাচগুলোতে।’

banner1

উপরে