অস্ট্রেলিয়াকে নিয়ে যা বললেন মুশফিকুর রহিম

প্রকাশের সময়: ১২:১০ পূর্বাহ্ন - রবি, আগস্ট ২৭, ২০১৭

mus

স্পোর্টস লাইফ, ডেস্কওয়ানডেতে বাংলাদেশ সমীহজাগানো শক্তি বেশ কিছু দিন ধরে। টেস্ট ক্রিকেটেও টাইগারদের পায়ের নিচের মাটি শক্ত হচ্ছে ধীরে-ধীরে। গত বছর ইংল্যান্ডকে হারানোর পর এবছর শ্রীলঙ্কায় ‘ঐতিহাসিক’ শততম টেস্টেও বিজয় নিশান উড়েছে।

এবার সামনে অস্ট্রেলিয়া। মুশফিকুর রহিমের বিশ্বাস, ক্রিকেটের সবচেয়ে সফল দলকেও হারানো সম্ভব। প্রথম টেস্ট শুরুর আগের দিন বাংলাদেশ অধিনায়কের সংবাদ সম্মেলনে উঠে এসেছে সিরিজ নিয়ে নানা প্রসঙ্গ। প্রশ্নোত্তর আকারে তুলে ধরা হলো মুশফিকের চিন্তা-ভাবনা-পরিকল্পনা।

প্রশ্ন: বাংলাদেশের পক্ষে অস্ট্রেলিয়াকে হারানো সম্ভব?

মুশফিক: আমরা কোনও এলিয়েনের বিপক্ষে খেলছি না। অস্ট্রেলিয়া পেশাদার ও শক্তিশালী দল ঠিকই, কিন্তু আমরা আগেও এমন ভালো দলের বিপক্ষে খেলেছি। ঘরের মাঠে ইংল্যান্ডের মতো দলকে হারিয়েছি। আশা করি, সব বিভাগে ভালো খেলেই দলকে সাফল্য এনে দিতে পারবো।’

প্রশ্ন: সিরিজে আপনাদের লক্ষ্য কী?

মুশফিক: আমরা জয়ের জন্যই খেলবো। আমরা গত দুই বছর ধরে ভালো খেলছি। নিজেদের ওপর আস্থা আছে বলেই দলের সবাই বলছে, আমাদের পক্ষে সিরিজ জেতা সম্ভব। এটা শুধু কথার কথা নয়। আমাদের দলে এমন খেলোয়াড় আছে, যার পক্ষে যে কোনও সময় ম্যাচ ঘুরিয়ে দেওয়া সম্ভব। আমাদের শুধু বেসিক ঠিক রেখে ভালো খেলতে হবে। অস্ট্রেলিয়ার মতো বিশ্বমানের দলের বিপক্ষে তেমন খেলার সুযোগ পাওয়া যায় না। আমরা সুযোগটা কাজে লাগাতে চাই।

প্রশ্ন: অস্ট্রেলিয়ার মতো দলের বিপক্ষে অধিনায়ক হিসেবেও বাড়তি দায়িত্ব থাকে। এটা নিয়ে কী ভাবছেন?

মুশফিক: অস্ট্রেলিয়া দলে একসময় স্টিভ ওয়াহ, রিকি পন্টিংয়ের মতো অধিনায়ক ছিল। ছোটবেলায় তাদের খেলা দেখে অনেক কিছু শিখেছি। শুধু অধিনায়ক নয়, অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে খেলোয়াড় হিসেবেও অনেক কিছু প্রমাণ করার আছে। ওদের কাছ থেকে অনেক কিছু শেখারও আছে।

প্রশ্ন: অধিনায়ক ও ব্যাটসম্যান হিসেবে স্টিভেন স্মিথকে কীভাবে মূল্যায়ন করবেন?

মুশফিক: আমি ওকে টেস্টের এক নম্বর ব্যাটসম্যান হিসেবে দেখি। উপমহাদেশে টেস্টে অসাধারণ রেকর্ড স্টিভেন স্মিথের। আবার অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়কদের বৈশিষ্ট্য বজায় রেখে আগ্রাসী। আমরা চেষ্টা করবো স্মিথকে দ্রুত ফিরিয়ে দেওয়ার। আর অধিনায়ক স্মিথের সব কৌশল বানচাল করার চেষ্টা তো থাকবেই।

প্রশ্ন: উপমহাদেশে অস্ট্রেলিয়ার অফস্পিনার নাথান লিয়নের পারফরম্যান্স খুব ভালো। তাকে নিয়ে কী পরিকল্পনা?

মুশফিক: আমাদের দলে বেশ কয়েকজন বাঁহাতি ব্যাটসম্যান আছে। তাই সে আমাদের জন্য হুমকি হয়ে দেখা দিতে পারে। ভারতের ব্যাটসম্যানরা স্পিন খুব ভালো খেলে, অথচ ভারতেই সে খুব ভালো বোলিং করেছে। তবে আমাদের ব্যাটসম্যানদেরও যে কোনও বোলারের বিপক্ষে ভালো করার আত্মবিশ্বাস আছে।

প্রশ্ন: গুরুত্বপূর্ণ সময়ে ক্যাচ মিস বা মিসফিল্ডিং বাংলাদেশকে অস্বস্তিতে ফেলে দিয়েছে অনেকবার। এ ব্যাপারে আপনারা কতটা সতর্ক?

মুশফিক: এটা অবশ্যই উদ্বেগের বিষয়। কিন্তু কেউ ইচ্ছা করে রান আউট মিস করে না বা ক্যাচ ছাড়ে না। এটা খেলারই অংশ। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে শেষ টেস্টে বেন স্টোকস ৯ রানে স্লিপে ক্যাচ দিয়ে জীবন পেয়ে সেঞ্চুরি করেছিল। আমরা চেষ্টা করবো সব সুযোগ কাজে লাগানোর।

প্রশ্ন: আপনার চার নম্বরে ব্যাটিং করার সম্ভাবনা কতটা?

মুশফিক:  কিপিং করে চার নম্বরে ব্যাটিং করা কষ্টকর। এনিয়ে আমরা চিন্তাভাবনা করছি। তবে যেখানেই ব্যাটিং করি না কেন, সবসময় চেষ্টা থাকে দলের জন্য অবদান রাখার।

প্রশ্ন: সিরিজটিকে ঐতিহাসিক বলা হচ্ছে। আপনি কী ভাবছেন?

মুশফিক: আমাদের জন্য প্রতিটি ম্যাচই গুরুত্বপূর্ণ। আমরা অন্য দলগুলোর মতো প্রতি বছর ১০-১২টা টেস্ট খেলি না। অনেক দিন পর খেলতে নামি বলে মনে হয় ম্যাচটা ঐতিহাসিক।

banner1

উপরে