ভলিবল খেলায় আঙ্গুলের আঘাত ও করণীয়

প্রকাশের সময়: ১০:৪৩ অপরাহ্ন - রবি, এপ্রিল ৩০, ২০১৭

v Injury

শামীম-আল্-মামুন : ভলিবল খেলায় খেলোয়াড়দের সাধারণ ইনজুরি বা আঘাত প্রাপ্তির বিষয়ে কিছুুটা হলেও ধারনা দেওয়ার চেষ্টা করেছি। ৫টি কমন বা সাধারণ ইনজুরি সম্পর্কে আলোচনা করা হয়েছে। এর বাহিরেও আকস্মিক দূর্ঘটনা জনিত কিছু আঘাত ভলিবল খেলোয়াড়দের হয়ে থাকে। বিশেষ করে মহিলা ভলিবল খেলোয়াড়দেরকে এই সব আঘাত পাওয়ার সম্ভাবনা বেশী থাকে।

এক্সিডেন্টাল বা আকস্মিক দূর্ঘটনা জনিত আঘাতসমূহ :
১. ফিংগার ইনজুরি বা আঙ্গুলের আঘাত
২. কাপ মাসল ইনজুরি বা পুল
৩. হ্যামস্ট্রিং ইনজুরি বা মাসল পুল
৪. বেলী ইনজুরি বা প্যাকট্রোলিস মেজর মাসল ইনজুরি

ফিংগার ইনজুরি : 
এই আঘাত ভলিবল খেলোয়াড়দের আকস্মিকভাবে হয়ে থাকে। বিশেষ করে স্পাইকিং বল ব্লক করার সময় ব্লকাররা ফিঙ্গার ইনজুরির সম্মুখীন হন। সঠিক ব্লকিং এ্যাকশন (হাতের অগ্রভাগ আঙ্গুলসহ) না হলে এই আঘাত প্রাপ্তি হতে বাধ্য। একজন স্পাইকার সজোরে বলে আঘাত করে বিপক্ষ দলের কোর্টে ফেলার চেষ্টা করে।

বেশীরভাগ সময় তাঁকে ব্লকের সম্মুখীন হতে হয়। আর ব্লককে পাশ কাটিয়ে যাওয়ার জন্য তাঁকে অনেক সময় চাতুরীর আশ্রয় নিতে হয়। ফলে ওভার দ্য ব্লক বল হিট করতে হয়। এর ফলে ব্লকারের আঙ্গুলে আঘাত পাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। যেহেতু আঙ্গুলের হাড়গুলো দেহের অন্যান্য হাড়ের তুলনায় কিছুটা নমনীয় এবং ছোট আকৃতির ফলে আঙ্গুলের জোড়ায় আঘাত লাগে এবং সাথে সাথে ফুলে যায়। অনেক ক্ষেত্রে আঙ্গুলের গ্যাপগুলিতে চির ধরে এবং রক্তপাতও ঘটে।

প্রতিকার : 
আঘাত প্রাপ্তির সাথে সাথে বরফ দিয়ে ফোলা কমানোর জন্য পরিচর্যা করা। প্লাস্টিক পাতলা ব্যান্ডেজ দিয়ে আঙ্গুল সুন্দরভাবে বেঁধে দেওয়া। এছাড়া তাৎক্ষনিক পেইন কিলিং স্প্রে দিয়ে ব্যাথা উপশমের ব্যবস্থা নেয়া। যদি বোঝা যায় খেলোয়াড় ব্যাথায় কাতর হয়ে পড়ছে, সাথে সাথে ডাক্তারের স্মরণাপন্ন হওয়া এবং ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহন করা।

S-11

banner1

উপরে